সিনেমা মুক্তিতে আপত্তি, পিছিয়ে গেলো ‘ফাইটার’

:: আনন্দধারা প্রতিবেদক | পাবলিকরিঅ্যাকশন.নেট
প্রকাশ: ৫ মাস আগে

ভারতীয় সিনেমা বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে। সে অনুযায়ী হৃতিক-দীপিকার ‘ফাইটার’ও মুক্তি দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্ট। হঠাৎ করেই শোনা যাচ্ছে এখন বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে না সিনেমাটি।

আর কয়েকদিন পরই ভাষার মাস ফেব্রুয়ারি। স্বাভাবিক কারণে ভাষার মাসে ভিনদেশী হিন্দি ভাষার সিনেমা মুক্তি দিতে চাচ্ছে না সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদ। ভারতীয় সিনেমা মুক্তির জন্য সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদের অনাপত্তিপত্র প্রয়োজন। সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদের আহ্বায়ক খোরশেদ আলম খসরু জানান, আজ বৃহস্পতিবার বিকালে সেন্সর বোর্ডে ‘ফাইটার’ সিনেমাটি দেখার সিডিউল ছিল। সন্ধ্যায় সেন্সর পেলে সিনেমাটি শুধু ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত সিনেমা হলে চলতে পারে। কিন্তু ভাষার মাসে এই সিনেমা চলবে না।

তিনি আরো বলেন, হিন্দি সিনেমা মুক্তি দিতে হলে সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদের অনাপত্তিপত্র লাগে। গতকাল বুধবার এফডিসিতে পরিষদের চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৮ সংগঠনের নেতাদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আমরা জানুয়ারি মাসে হিন্দি সিনেমার মুক্তির ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছি। তবে ভাষার মাসে হিন্দি সিনেমার প্রদর্শনী বন্ধের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মার্চ মাস থেকে পুনরায় হিন্দি সিনেমার প্রদর্শনী হতে পারে।’

অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্টের কর্ণধার ও পরিচালক অনন্য মামুন বলেন, ‘ফাইটার’ মুক্তির জন্য আমাদের সমস্ত প্রস্তুতি ছিল। তথ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনও পেয়েছি। কিন্তু সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদ ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে সিনেমাটি প্রদর্শনের ব্যাপারে আপত্তি জানিয়েছে। তবে তারা জানুয়ারির ছয়দিন সিনেমাটি প্রদর্শনীর সম্মতি দিয়েছে। কিন্তু ছয়দিনের জন্য সিনেমাটি বাংলাদেশে চালাতে চান না ইন্ডিয়ান প্রযোজক। তাই আমরা বাংলাদেশে এটি মুক্তি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই সিনেমার জন্য এলসি, ভ্যাট, ট্যাক্সসহ সব কিছুই নিয়মমাফিক করা ছিল। শুরু থেকে প্রচার প্রচারণার জন্য অনেক টাকা খরচ হয়েছে। কিন্তু সিনেমাটি মুক্তি না দেওয়ায় আমরা মোটা অঙ্কের ক্ষতির মধ্যে পরলাম।’

‘ফাইটার’ নির্মাণ করেছেন সিদ্ধার্থ আনন্দ। এতে অভিনয় করেছেন হৃতিক রোশন, দীপিকা পাড়ুকোন, অনিল কাপুর, আশুতোষ রানা প্রমুখ। ২৫০ কোটি রুপির বিশাল বাজেটে নির্মিত হয়েছে সিনেমাটি।