রাজধানীতে কোথায় কখন ঈদের জামাত

:: পা.রি. রিপোর্ট ::
প্রকাশ: ১২ মাস আগে
ফাইল ফটো

মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা বৃহস্পতিবার (২৯ জুন)। রাজধানীর হাইকোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদুল আজহার প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় হবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা গেছে, প্রতিকূল আবহাওয়া বা অন্য কোনো কারণে জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত না হলে সকাল ৮টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রধান জামাত হবে।

ইতোমধ্যে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাত আয়োজনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদ, কূটনীতিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ বৃহস্পতিবার ঈদের সকালে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে প্রধান জামাতে অংশ নেবেন।

২৫ হাজার ৪০০ বর্গমিটার আয়তনের মূল প্যান্ডেলে একসঙ্গে ৩৫ হাজার মুসল্লি ঈদের জামাতে নামাজ আদায় করবেন। এছাড়াও অনেক মুসল্লি মূল প্যান্ডেলের বাইরে ঈদের জামাত আদায় করতে পারবেন।

এদিকে, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে এবার ঈদুল আজহার পাঁচটি জামাত হবে। প্রথম জামাত সকাল ৭টায় শুরু হবে। এতে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক ইমামতি করবেন। মুকাব্বির থাকবেন বায়তুল মোকাররম মসজিদের খাদেম আব্দুল হাদী।

দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায় হবে। ইমাম থাকবেন বায়তুল মোকাররমের পেশ মাওলানা মুহীউদ্দিন কাসেম। মুকাব্বির থাকবেন বায়তুল মোকাররমের অবসরপ্রাপ্ত মুয়াজ্জিন হাফেজ ক্বারী মো. আতাউর রহমান।

৯টার তৃতীয় জামাতের ইমাম হলেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুফাসসির মাওলানা আবু সালেহ পাটোয়ারী। বায়তুল মোকাররমের চিফ খাদেম মো. শহিদ উল্লাহ এ জামাতের মুকাব্বির থাকবেন।

চতুর্থ জামাত হবে সকাল ১০টায়। এতে ইমাম থাকবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক মাওলানা মো. আনিসুজ্জামান সিকদার। মুকাব্বির থাকবেন বায়তুল মোকাররম মসজিদের খাদেম হাফেজ মো. রুহুল আমিন।

পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত হবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে। এতে ইমাম থাকবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুফতি মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল্লাহ। মুকাব্বির হবেন খাদেম হাফেজ মো. জহিরুল ইসলাম।

পাঁচটি জামাতে কোনো ইমাম অনুপস্থিত থাকলে বিকল্প ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনে উপ-পরিচালক মাওলানা জাকির হোসেন।

ঢাকার অন্যান্য জায়গায় জামাতের সময়সূচি:
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ মসজিদুল জামিআয় দুটি জামাত হবে। প্রথম জামাত সকাল ৮টায় ও দ্বিতীয় জামাত সকাল ৯টায় হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হল মসজিদে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে, ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ হল লনে সকাল ৮টায়, ফজলুল হক মুসলিম হলের পূর্ব পাশের খেলার মাঠে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে ও আজিমপুরেৎর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক এলাকার বায়তুন নূর জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে ঈদের জামাত হবে।

মিরপুরের পল্লবীর ১২ নম্বর সেকশনে হারুন মোল্লাহ ঈদগাহ, পার্ক ও খেলার মাঠে সকাল সোয়া ৭টায় পবিত্র ঈদুল আজহার জামাত হবে।

সকাল ৭টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় অবস্থিত ছয়টি মসজিদে ঈদের জামাত হবে। এর মধ্যে মারকাজুল ফিকরিল ইসলামীতে (বড় মসজিদ) সকাল ৭টায়, সি ব্লকের উম্মে কুলসুম জামে মসজিদে সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে, এফ ব্লকের জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে, জি ব্লকের বায়তুল জান্নাত জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে, কে ব্লকের মদিনাতুল উলুমে সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে এবং এন ব্লকের ফকিহুল মিল্লাত জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের জামাত হবে।

ধানমন্ডি আবাসিক এলাকায় চারটি মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত ঈদের জামাত হবে। এর মধ্যে সোবহানবাগ জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে, ১২ নম্বর রোডে অবস্থিত তাকওয়া জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে, ৬ নম্বর রোডের ঈদগাহ জামে মসজিদে সকাল ৮টায় এবং ৭ নম্বর রোডের বায়তুল আমান জামে মসজিদে সকাল ৮টায় জামাত হবে।

মিরপুর-১২ নম্বরের এ ব্লকের হারুন মোল্লা ঈদগাহ মাঠে সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে ও সায়েদাবাদের চিশতীয়া সাইদিয়া জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে ঈদের জামাত হবে।

এছাড়া, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার মসজিদ ও ঈদগাহগুলোতে সকাল ৭টা থেকে ৮টার মধ্যে ঈদের জামাত হয়ে থাকে।