মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট হওয়ার পথে ‘ভারত বিরোধী’ নেতা মুইজ্জো

:: মোহাম্মদ মাহামুদুল, মালদ্বীপ প্রতিনিধি ::
প্রকাশ: ৯ মাস আগে
সংগৃহীত ছবি

ভারত মহাসাগরের দেশ মালদ্বীপের নতুন প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন বিরোধী নেতা মোহাম্মদ মুইজু। দেশটির বিরোধী দলীয় এই নেতাকে ‘ভারত বিরোধী’ হিসেবে দেখা হয়।

শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) মালদ্বীপে রান-অফ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে লড়াই করেছেন মোহাম্মদ মুইজু ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহ। ভোট শেষে প্রাথমিক ফলাফলে দেখা গেছে, মোহাম্মদ মুইজু নির্বাচিত হওয়ার পথে এগিয়ে আছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, দ্বিতীয় দফায় নির্বাচনে মোট ৫৮৬টি ব্যালট বাক্স ব্যবহার করা হয়েছে। ২৫ শতাংশ (১৫৮টি) ব্যালটের ভোট গণনা শেষে দেখা গেছে মোহাম্মদ মুইজু পেয়েছেন ৫১ দশমিক ৬৮ শতাংশ ভোট। অপরদিকে ইব্রাহিম সোলিহ পেয়েছেন ৪৮ দশমিক ৩২ শতাংশ ভোট।

গত ৯ সেপ্টেম্বর মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হয়। তবে সেদিন এককভাবে কোনো প্রার্থী ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পাননি। ফলে এ নির্বাচন গড়ায় দ্বিতীয় দফায়।

নির্বাচনের আগে মোহাম্মদ মুইজু প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট হতে পারলে মালদ্বীপে ভারতের প্রভাব কমাবেন। এছাড়া দেশটিতে যে অল্প সংখ্যক ভারতীয় সেনা মোতায়েন আছেন তাদের বের করে দেবেন।

৩৯ বছর বয়সী মোহাম্মদ মুইজু রাজনৈতিক দল প্রোগ্রেসিভি পার্টি অব দ্য মালদ্বীপের (পিপিএম) নেতৃত্বাধীন জোট ২০১৩ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত যখন ক্ষমতায় ছিল তখন চীনের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক গড়ে তুলেছিল মালদ্বীপ। ওই সময় চীনের রোড অ্যান্ড বেল্ট ইনেশিয়েটিভে যোগ দিয়েছিল দেশটি এবং বড় অবকাঠামো নির্মাণের জন্য বেইজিংয়ের কাছ থেকে বিপুল ঋণ আদায় করে নিয়েছিল।

২০১৮ সালে সর্বশেষ নির্বাচনে জয় লাভ করে প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহ। তাকে ‘ভারতপন্থি’ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

এদিকে ভোট আদায় শেষে নির্বাচন কর্মকর্তারা জানান, এই রান অফ নির্বাচনে ৮৫ শতাংশ (২ লাখ ৪২ হাজার) ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।