মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনকে অযোগ্য ঘোষণা

::
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট  নির্বাচনে সাবেক প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেনা। সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ তাকে অযোগ্য ঘোষণা করেছে। 

রোববার ৬ আগস্ট মালদ্বীপের সুপ্রিম কোর্ট শুনানির শেষে এই রায় ঘোষণা করেছে।

জেল থেকে আইনজীবীর মাধ্যমে গত সপ্তাহে আগামী  ৯ সেপ্টেম্বরের অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট  নির্বাচনে প্রার্থীতা জমা দেয় সাবেক এই প্রেসিডেন্ট ।ইসি প্রার্থিতা বাতিল করেদিলে ইয়ামিনের আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টে আপিল করে।  আপিল বিভাগ ও একেই রায় দিয়েছে তাই সাবেক প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন ন।

ইসি ইয়ামিনের প্রার্থিতা বাতিল করার কারন:
দুর্নীতি ও অর্থপাচার মামলায় মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিনের বিরুদ্ধে একটি প্রাইভেট কোম্পানির কাছ থেকে সুবিধা নেওয়ার অভিযোগে গতবছর ২৫ ডিসেম্বর ১১ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত।

এছাড়া তাকে ৫০ লাখ মার্কিন ডলার জরিমানাও করা হয়েছে। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ইয়ামিন। এর আগে ২০১৯ সালে রাষ্ট্রীয় তহবিল থেকে ১০ লাখ ডলার আত্মসাতের জন্য তাকে ৫ বছরের কারাদণ্ড ও ৫০ লাখ ডলার জরিমানা করা হয়েছিল।

সংবিধানের ১০৯ (ফ) অনুচ্ছেদ উদ্ধৃত করে ইসি বলেন কোনো নাগরিক ১২  মাসের বেশি কারাদণ্ডে দণ্ডিত হলে তার সাজা শেষ  না হওয়া পর্যন্ত কিনবা আদালত তাহকে ক্ষমা না করা পর্যন্ত সেই প্রার্থী অযোগ্য   সংবিধানের ১০৯ (ফ) এর উল্লেখ আছে।

২০১৮ সালে ক্ষমতা হারান আবদুল্লা ইয়ামিন। তবে এই  বছরের মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রগ্রেসিভ পার্টি থেকে তিনি প্রার্থী হয়েছিলো।

রায়ের পরে  বিরোধীদলীয় নেতা, সাবেক প্রেসিডেন্ট  আবদুল্লাহ ইয়ামিন আবদুল গাইয়ুম মালদ্বীপের প্রগ্রেসিভ পার্টি (পিপিএম) এবং পিপলস ন্যাশনাল কংগ্রেস (পিএনসি) নিয়ে গঠিত বিরোধী জোটকে আগামী  নির্বাচন বয়কট করার নির্দেশ দিয়েছেন।

ইয়ামিন পিপিএম-পিএনসি জোটকে নির্বাচন বয়কট করার কথা বিবেচনা করার জন্য একটি নোট পাঠিয়েছেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে।

পিপিএম-পিএনসি নেতৃত্ব তার পরবর্তী পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত নিতে একটি জরুরি বৈঠক ডেকেছে।

প্রেসিডেন্ট প্রার্থীরা গত ২৩ জুলাই থেকে ৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তাদের মনোনয়ন জমা দিতে পারবেন। ১০ আগস্ট থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থীরা তাদের প্রচার শুরু করার সুযোগ পাবেন এবং ৮ সেপ্টেম্বর প্রচারাভিযান বন্ধ হবে।

এ বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এখন পর্যন্ত মনোনয়ন জমা দিয়েছে ১২ জন আদের মধ্যে  ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এগিয়ে আছে। তারা হলেন, বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহ, পার্লামেন্টের স্পিকার মোহাম্মদ নাশিদ, মালদ্বীপ ন্যাশনাল পার্টির (এমএনপি) চেয়ারপারসন মোহাম্মদ নাজিম এবং সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উমর নাসির।