নাস্তিক আসাদ নূরকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে : দুধরচকী

:: পা.রি. ডেস্ক | পাবলিকরিঅ্যাকশন.নেট
প্রকাশ: ১১ মাস আগে

ব্লগার নাস্তিক আসাদ নূর গত ৪ আগস্ট তার ইউটিউব চ্যানেল Asad Noor-এ “মাওলানা তারেক মনোয়ার সহ অন্যান্য মোল্লা-মুন্সীদের চাপাবাজি দেখুন” শিরোনামে আপলোডকৃত ভিডিওতে বিশ্বের মহামানব, আমার প্রাণের চেয়ে প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসসাল্লাম সম্পর্কে জঘন্য কটূক্তি। যা কোন মুসলমান সহ্য করতে পারে না। অবিলম্বে আসাদ নূরকে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী করেছেন জকিগঞ্জ উপজেলা সচেতন নাগরিক ফোরাম সিলেট এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী।

গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচক বলেন, স্বঘোষিত নাস্তিক আসাদ নূর তার ভিডিওতে দেড়শো কোটি মুসলমানের প্রাণের স্পন্দন হযরত মুহাম্মদ (সা.)এর নাম বেয়াদবির সাথে উচ্চারণ করে এই কুলাঙ্গার নবী সা.কে ডাকাত ও ভণ্ড নবি বলার জঘন্য স্পর্ধা দেখিয়েছে। এছাড়াও মহাগ্রন্থ আল-কুরআন সম্পর্কেও মনগড়া বক্তব্য দিয়েছে।

দুধরচকী বলেন, কুলাঙ্গার আসাদ নূর বারবার ইসলামধর্ম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে জঘন্য কটূক্তি ও কুৎসা রটিয়ে বাংলাদেশের সুন্দর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও সামাজিক সহাবস্থানকে বিনষ্ট করার ষড়যন্ত্র করছে। সে ইসলামী চেতনাবোধ ও বিশ্বাসের বিরুদ্ধে জঘন্য বিষোদ্গার করে যাচ্ছে। সে ঘৃণার চর্চা করে দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে বাংলাদেশের শত্রুদের ক্রীড়নক হয়ে কাজ করছে। বাংলাদেশের শান্তিপূর্ণ সামাজিক সহাবস্থান ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অটূট রাখার স্বার্থে নাস্তিক আসাদ নূরকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক সর্বোচ্চ কঠোর শাস্তি দিতে হবে। পাশাপাশি তাকে ইন্ধন যোগাতে পর্দার আড়াল থেকে কারা কারা কলকাঠি নাড়ছে, সঠিক অনুসন্ধান করে সেটা খুঁজে বের করতে হবে। যাতে আগামীতে এ ধরণের চক্রান্তে শামিল হওয়ার সুযোগ ও দুঃসাহস কেউ দেখাতে না পারে।

দুধরচকী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে সন্তান। তিনি একজন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পাশাপাশি নিয়মিত তাহজ্জুদ নামাজ ও কুরআন তেলাওয়াত করেন। তাই ধর্মপ্রাণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি কুলাঙ্গার আসাদ নুর আমাদের কলিজার টুকরা রাসূল (সা.) কে মরুভূমির কুখ্যাত ডাকাত বলে গালি দিয়েছে। এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং তাকে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির আওতায় আনা হোক। যত দ্রুত সম্ভব এই কুলাঙ্গারকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি। কলিজায় হাত দিয়েছে এই বেয়াদব। আমার নবী রহমাতুল্লিল আলামীন মুস্তফা ﷺ কে নিয়ে অকাট্য ভাষায় কথা বলেছে। এগুলো কোনোদিন বিশ্বের কোন মুসলমান মেনে নিতে পারবে না। তাই বিশৃঙ্খলা পরিবেশ সৃষ্টি হওয়ার আগেই তাকে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্ত শাস্তির জোর দাবী জানাচ্ছি।