নতুন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান!

:: স্পোর্টস ডেস্ক | পাবলিকরিঅ্যাকশন.নেট
প্রকাশ: ১১ মাস আগে

তামিম ইকবাল দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়ার পর এখন নেতৃত্ব শূন্য বাংলাদেশ ওয়ানডে দল। কার কাঁধে উঠবে সবচেয়ে শক্তিশালী সংস্করণের আর্মব্যান্ড?

দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনায় নেতৃত্ব নিয়ে ভাবছে বোর্ড, তাই ধীরে-সুস্থে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বিসিবির ভাবনায় আছেন টেস্ট ও টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তবে নেতৃত্ব নিয়ে সাকিবের সঙ্গে আলাপের পর, সাকিবের ভাবনা জানার পরই সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে চায় বোর্ড।

তবে, এমন আলোচনা যখন চারদিকে তখন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক ও গেম ডেভলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন জানিয়েছেন অধিনায়ক হিসেবে সাকিব আল হাসানই এখন এগিয়ে আছেন।

‘আমি মনে করি, যে দলে সাকিব আছে… আমার ব্যক্তিগত মতামত, আমি হলে হয়তো সাকিবের কথাই চিন্তা করতাম’ -শনিবার (৫ আগস্ট) সংবাদমাধ্যমে অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্নে এভাবে সাকিবের দিকে নিজের ভোট দিলেন সুজন।

নেতৃত্ব নিয়ে সাকিবের সঙ্গে আলোচনায় আছেন লিটন দাসও। গত নভেম্বরে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ সিরিজ জিতেছে তার নেতৃত্বে। আফগানিস্তান সিরিজ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে আছেন সহ-অধিনায়ক হিসেবে। সবমিলিয়ে লিটনকেও একেবারে ফেলে দিচ্ছেন না সুজন। তবে অভিজ্ঞতার বিচারে সবকিছু মিলিয়ে সাকিবকেই তিনি এখন নেতা হিসেবে চাচ্ছেন।

‘আমি এখন লিটন দাসকে আমি কিভাবে বলব লিটন দাস না। লিটন সিরিজ জিতিয়েছে ভারতের বিপক্ষে। কিন্তু সাকিব তো অবশ্যই এখানে এগিয়ে থাকবে। সাকিবের মাথা, সাকিবের অধিনায়কত্বের অভিজ্ঞতা সব কিছু তো অনেক বেশি। তারপরও আমি লিটনকে ছোট করতে চাই না। সে ভালো কাজ করেছে।’

‘যদি বোর্ড মনে করে লিটন, তাহলে এটাও সমস্যা নেই। লিটন যে প্রস্তুত না এটাও বলাটা ঠিক হবে না। ক্লাব লেভেল খেলেছে, জাতীয় দলে খেলছে, তার অভিজ্ঞতাটাও অনেক ভালো। যেহেতু ভারতের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছি, তাই লিটনের কথা বার বার আসবে। কিন্তু এখনো সাকিব যেহেতু আছে, আমার মনে হয় আমাদের হাতে খুব ভালো একটা চয়েজ আছে’ -আরও যোগ করেন সুজন।

সাকিবের কাঁধে এখন বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি নেতৃত্বের ভার। তার অধীনে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ বার্তা দিচ্ছে নতুন যুগের। ওয়ানডেতেও ২০০৯ সাল থেকে নেতৃত্বে দিয়েছেন ৫০টি ম্যাচ। তার অধীনে ঘরের মাঠে বাংলাদেশ ২০১১ বিশ্বকাপও খেলে। প্রায় দেড় যুগের ক্যারিয়ারে সাকিবের আছে বিশ্বব্যাপী নানা ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলার অভিজ্ঞতা। এসব সাকিবের পাল্লা ভারী করছে আরও।

অন্যদিকে লিটন ওয়ানডেতে ৫টি ম্যাচসহ সবমিলিয়ে ৭টি ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন। সাকিবের তুলনায় এখানেও বেশ পিছিয়ে এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। সামনে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের আগে এগুলোও নিশ্চয় বিবেচনায় আনবে ক্রিকেট বোর্ড। সুজন জানান, একদিন লিটন-শান্তরাই বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবে, তৈরি হবে। তবে এখনো যদি সাকিবকে টপকে লিটনকে নেতৃত্ব দেওয়া হয় তাহলে সাকিব এসব ভাববেই না বলে মনে করেন সুজন।

‘লিটন, শান্ত, মিরাজ এরা তৈরি হবে। এদেরই অধিনায়কত্ব করতে হবে। এদের হাতেই আর্মব্যান্ড যাবে। তামিম করবে না, সাকিব একসময় অবসরে যাবে। একসময় মুশফিক অবসরে যাবে। তখন এরাই সিনিয়র হবে। তবে লিটনকে দিলে যে খুব বড় ইস্যু হবে তা নয়। সাকিবকে আমি ব্যক্তিগতভাবে চিনি। আমার মনে হয় না সাকিবের কাছে এসব ম্যাটারই করবে। সাকিব লিটনকে অনেক বেশি সহোযোগিতা করবে আমি জানি’-বলছিলেন সুজন।

এদিকে, বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন, সবচেয়ে সহজ হচ্ছে সাকিবকে অধিনায়ক করে দেওয়া। তিনি বলেন, সাকিবের নাম আসা তো অবশ্যম্ভাবী। এটা তো পরিষ্কার পছন্দ। কিন্তু আপনি কি বলতে পারেন দুই বছর খেলবে সাকিব? জানি না তো? ওর পরিকল্পনা, ওর সাথেও তো বসতে হবে। আমরা একটু জেনে নেই। এটা নিয়ে কথাবার্তা বলতে হবে। বোর্ডের সবার সঙ্গে কথা বলতে হবে। ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলতে হবে। তবে এটা ঠিক, সবচেয়ে সহজ হচ্ছে সাকিবকে (অধিনায়ক) করে দেওয়া। এটাতে কোনও সমস্যা নেই।

আবাহনী ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে ক্লাব প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানের পর শনিবার (৫ আগস্ট) সন্ধ্যায় সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন পাপন। এ সময় অধিনায়ক বাছতে গিয়ে দুটি সমস্যার মুখোমুখি হওয়ার কথা জানান তিনি। একটি হলো দীর্ঘমেয়াদি নেতৃত্ব খোঁজা আরেকটি হলো নতুন কাউকে দিয়ে দিলে সে চাপ সামলাতে পারবে কি না।

‘একটু ব্রেক দিয়ে, একটু সময় নিয়ে চিন্তা করতে হবে। আগেও যেটা বলেছি, যদি একটা সিরিজ হতো, তাহলে যে ভাইস ক্যাপ্টেন তাকে দিয়ে চালিয়ে দেওয়া যেত। কিন্তু আমাকে এখন লং টার্ম চিন্তা করতে হবে। মানে দুটি সমস্যা, একটা লং টার্ম চিন্তা করতে গেলে এক রকম। আবার আরেকটা সমস্যা হচ্ছে ওয়ার্ল্ড কাপ। ওয়ার্ল্ড কাপের চাপটাও কিন্তু কম না। এটা এত সহজ না।’

‘আমি একজন নতুন কাউকে বানিয়ে দেব, সে এই চাপটা নিতে পারবে কি না, এটা এক নম্বর। আবার যদি লং টার্ম চিন্তা করেন, তাহলে আমি এখন একজনকে বানানো, দেখা যাবে এক বছর পর সে থাকবে না। তো লং টার্ম হবে কিভাবে? এই জিনিসগুলো নিয়েই আলাপ করতে হবে’-আরও যোগ করেন পাপন।