চালক ছাড়া দ্রুতগতিতে চলল ট্রেন, যেভাবে থামানো হলো

:: পাবলিক রিঅ্যাকশন ডেস্ক | পাবলিকরিঅ্যাকশন.নেট
প্রকাশ: ৪ মাস আগে

চালক ছাড়াই প্রায় ৭০ কিলোমিটার চলল ট্রেন। কারণ চালক ও তার সহকারী ঢালু রেলপথের অবস্থা দেখতে ট্রেন থেকে নেমে যায়। পরে হঠাৎ ট্রেনটি নিজে নিজে চলতে শুরু করে। এভাবে প্রায় ৭০ কিলোমিটারের বেশি পথ চলে সেটি।

পাঁচটি স্টেশনও পারি দেয়। পরে বিশেষ কায়দায় ট্রেনটি থামানো হয়। তবে এতে কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি।
রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতে।

জানা গেছে, ভারতের জম্মু-কাশ্মীরের কাথুয়া রেলস্টেশন থেকে পণ্যবাহী ট্রেনটি চালক ছাড়াই পাঞ্জাব প্রদেশের হোশিয়ারপুরে এসে পৌঁছায়।

রেলওয়ে সূত্র জানিয়েছে, দ্রুতগতির ট্রেনটিকে পরে থামানো হয়েছে। এ সময় কোনো দুর্ঘটনা কিংবা কেউ হতাহত হয়নি। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ভারতীয় রেলওয়ে।

এদিকে দ্রুতগতির ট্রেনটির ছুটে চলার একটি ভিডিও ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দেখা যায়, ট্রেনটি না থেমে একের পর এক স্টেশন পেরিয়ে যাচ্ছে। ট্রেনটির গতির কারণে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন স্টেশনে থাকা মানুষের মধ্যে।

কর্মকর্তারা বলেছেন, নুড়িপাথরবোঝাই ৫৩ বগির পণ্যবাহী ট্রেনটি জম্মু থেকে পাঞ্জাবে আসছিল। ক্রুদের দায়িত্ব বদলানোর জন্য কাথুয়া রেলস্টেশনে চালক ট্রেনটি থামান।

কর্মকর্তারা জানান, ওই জায়গায় রেললাইনে ঢাল ছিল। চালক ও তার সহকারী নেমে যাওয়ার পর হঠাৎ ট্রেনটি নিজে নিজে চলতে শুরু করে।

চলন্ত ট্রেন সম্পর্কে সতর্ক হওয়ার পরপরই কর্মকর্তারা তার পথের যে রেল ক্রসিং সেগুলো বন্ধ করে দেন। একপর্যায়ে চালকবিহীন ট্রেনটি ঘণ্টায় প্রায় ১০০ কিলোমিটার গতিতে চলতে শুরু করে। থামানোর আগে ৭০ কিলোমিটারের বেশি পথে সেটি পাঁচটি স্টেশন পেরিয়ে যায়। খবর পেয়ে ওই পথে অন্য ট্রেনের চলাচল ও রেলক্রসিং বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রেললাইনের ওপর কাঠের ব্লক ফেলে দ্রুতগতির ট্রেনটির গতি কমিয়ে ফেলা হয়। একপর্যায়ে ট্রেনটি থামানো হয়। এমন অবাক করা ঘটনা কেন ঘটল, তা অনুসন্ধানে এবং ভবিষ্যতে এমন ঘটনা যাতে আর কখনোই না ঘটে, সেটা নিশ্চিত করতে কাজ করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছে ভারতীয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

সূত্র : বিবিসি