গ্রিসের ভিসার আবেদন ঢাকায়, আর ভারত যেতে হবে না

:: পা.রি. ডেস্ক ::
প্রকাশ: ১২ মাস আগে

গ্রিসে যাওয়ার জন্য এখন থেকে বাংলাদেশিদের ভিসার আবেদন জমা দিতে আর নয়াদিল্লি যেতে হবে না। ভ্রমণ, কর্মসংস্থান, পারিবারিক পুনর্মিলন, শিক্ষার্থী এবং ডিজিটাল নোম্যাড-এর মতো সব ধরনের ভিসা ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশের নাগরিকরা এখন ঢাকায় নতুন চালু হওয়া গ্রিসের ভিসা আবেদন কেন্দ্র থেকে আবেদন করতে পারবেন।

ঢাকায় গ্রিসের কনস্যুলেট সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

গ্রিসের কূটনৈতিক ও কনস্যুলার কর্তৃপক্ষের একচেটিয়া বহিরাগত সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান গ্রিস ভিসা ওয়ার্ল্ড সেন্টার (জিভিসিডব্লিউ) ভিএফএস গ্লোবালের সঙ্গে অংশীদারিত্বে সকল ভিসা ক্যাটাগরির আবেদন গ্রহণের জন্য ঢাকায় একটি ডেডিকেটেড সেন্টার চালু করেছে।

ভিসা আবেদনকারীদের তাদের আবেদন জমা দিতে এবং তাদের বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করতে বোরাক মেহনুর (৮ম তলা), ৫১/বি, কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউয়ের ভিএফএস গ্লোবাল জয়েন্ট ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টারে (জেভিএসি) যাওয়ার আগে অনলাইন অ্যাপয়েন্টমেন্ট পেতে জিভিডব্লিউসি ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

ভিএফএস গ্লোবালের চিফ অপারেটিং অফিসার (দক্ষিণ এশিয়া) প্রবুদ্ধ সেন বলেন, ‘যারা কাজ, শিক্ষা, ব্যবসা ও অবসর সময় কাটানোর জন্য গ্রিস ভ্রমণে আগ্রহী, নতুন কেন্দ্রটি বাংলাদেশের জনগণকে ব্যাপকভাবে উপকৃত করবে। এই উন্নয়ন জিভিডব্লিউসি’র সঙ্গে আমাদের বিশ্বস্ত অংশীদারিত্বের আরেকটি অধ্যায়, যার সঙ্গে আমরা ২০১৮ সাল থেকে কাজ করছি।’

অত্যাধুনিক নতুন ভিএসি নিয়মিত আবেদনকারীদের জন্য ডেডিকেটেড সাবমিশন কাউন্টারের পাশাপাশি নির্বিঘ্ন ভিসা অভিজ্ঞতা খুঁজছেন এমন ভ্রমণকারীদের জন্য ঐচ্ছিক প্রিমিয়াম লাউঞ্জ পরিষেবা দিয়ে সজ্জিত থাকবে।

জিভিসিডাব্লু বিশ্বের ১৮টি দেশ ও ৮২ টি শহরে কাজ করে। এর অপারেশনাল সক্ষমতা এবং অংশীদারদের মূল্যবান অবদানের ওপর ভিত্তি করে, বিশেষত হেলেনিক টেলিকমিউনিকেশন অর্গানাইজেশন (ওটিই), ইউরোপের বৃহত্তম টেলিকম সংস্থা এবং ভিএফএস গ্লোবাল, জিভিসিডাব্লু প্রতিদিন হাজার হাজার ভিসা আবেদনকারীকে সেবা দিচ্ছে।

জিভিসিডব্লিউ’র ৮২টি ভিএসি এবং এর অত্যাধুনিক অনলাইন ভিসা অ্যাপ্লিকেশন প্রযুক্তি রক্ষণাবেক্ষণকারী প্রায় ৩০০ ভিসা হ্যান্ডলিং কর্মীর নিরন্তর প্রচেষ্টা আরও দক্ষ কর্মপ্রবাহের অনুমতি দেয় এবং সংশ্লিষ্ট গ্রিক কনস্যুলেটের কাজের চাপ উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করতে সক্ষম হয়েছে, যার ফলে ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া সহজতর হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গ্রীস বাংলাদেশের জন্য একটি উদীয়মান গন্তব্যস্থল। দেশটি প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে প্রায় ৭ হাজার গ্রিস ভিসা আবেদন গ্রহণ করছে।