এডিসি হারুনের সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্ক আছে কিনা, যা বললেন সানজিদা

:: পাবলিক রিঅ্যাকশন রিপোর্ট
প্রকাশ: ৯ মাস আগে

ছাত্রলীগের তিন নেতাকে থানায় মারধরের নেপথ্যের ঘটনা নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন রাষ্ট্রপতির সহকারী একান্ত সচিব (এপিএস) আজিজুল হকের স্ত্রী পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) সানজিদা আফরিন।

সানজিদা ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (এডিসি) হিসেবে কর্মরত এবং ৩১তম বিসিএস কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন: এডিসি হারুনকে পাঠানো হলো রংপুর রেঞ্জে

তিনি বলেন, সেদিন হাসপাতালে কী ঘটেছিল সে ব্যাপারে তদন্ত হচ্ছে। তদন্তে পুরো বিষয় বেরিয়ে আসবে। ঘটনার দিন হাসপাতালে আমার স্বামী পৌঁছার পর আমাকে কোনো কিছু নিয়ে প্রশ্ন করেননি। আমার স্বামী প্রথম এডিসি হারুন স্যারের ওপর চড়াও হন।

আরও পড়ুন: এবার আলোচনায় এডিসি সানজিদা

এডিসি হারুনের সঙ্গে ব্যক্তিগত কোনো সম্পর্ক আছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে এডিসি সানজিদা বলেন, হারুন স্যারের সঙ্গে আমার কোনো ব্যক্তিগত সম্পর্ক নেই। তিনি শুধুমাত্র আমার কলিগ। তবে হারুন স্যারের সহযোগিতা নিয়েছিলাম। তিনি আমাকে ডাক্তারের সিরিয়ালের ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন। এ ছাড়া আর কিছুই জানি না।

আরও পড়ুন: বরখাস্ত হলেও ভাতা পাবেন এডিসি হারুন

সোস্যাল মিডিয়ায় তিনি বুলিংয়ের শিকার হচ্ছেন দাবি করে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, অনেকে নোংরা মানসিকতার পরিচয় দিচ্ছেন। একটি ছবি ছড়িয়ে দিয়ে হারুন স্যারের সঙ্গে আমার বিয়ের কল্পকাহিনী প্রচার করছে। যে কেউ ভালোভাবে খেয়াল করলেই বুঝবে- ওই ছবির নারী আমি নই।

আরও পড়ুন: এডিসি হারুনকে একদিনে দুবার বদলি, নেপথ্যে কি

ওইদিনের ঘটনার বর্ণনা দিয়ে সানজিদা আরও বলেন, ইনটেনশন (উদ্দেশ্য) দেখে মনে হয়েছে, তারা আমাদের দুজনকে পাশাপাশি দাঁড় করিয়ে একটা ভিডিও করতে চাচ্ছে। পরবর্তীতে তারা সেটি ইউজ (ব্যবহার) করবেন, একটি অসৎ উদ্দেশ্যের জন্য হতে পারে।

তবে পরিকল্পিতভাবে আমার স্বামী এই ঘটনা ঘটিয়েছে কিনা বলতে পারব না। তবে তিনি খুব মারমুখী ছিলেন বলে দাবি করেন সানজিদা।