আমিরাতে মুনিরিয়া যুব তাবলীগ কমিটির উদ্যোগে ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উদযাপন

:: মুহাম্মদ শাহ জাহান, ইউএই ::
প্রকাশ: ৮ মাস আগে

আরব আমিরাতে মুনিরিয়া যুব তাবলীগ কমিটির উদ্যোগে ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উদযাপিত হয়েছে।

শুক্রবার (৬ অক্টোবর) এ উপলক্ষ্যে আমিরাতের ইন্টারন্যাশনাল উইনার্স ক্লাবে মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত শাখার উদ্যোগে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে বিশাল মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

মাহফিলে বক্তারা বলেন, আল্লাহর মনোনীত একমাত্র দ্বীন-ইসলামকে ধূলির ধরায় প্রতিষ্ঠা করে মানবজাতিকে হেদায়তের জন্যে শুভাগমন করেন রাহমাতুললিল আলামিন (স.)। তিনি কোনো নির্দিষ্ট জাতির জন্যে নয়। বরং সমগ্র মানবের জন্য প্রেরিত রাসুল। যার মাধ্যমে চূড়ান্ত পরিপূর্ণতা পেল ইসলাম এবং সমাপ্তি ঘটল নবুয়তের। আইয়্যামে জাহিলিয়্যাতে পৌত্তলিকতার পাপাচারে লিপ্ত মানব সম্প্রদায়কে তিনি আল্লাহর বান্দেগি শিখিয়েছেন। দুনিয়া ও আখিরাতের জীবনে মহাসাফল্য লাভের জন্যে খোদায়ী বিধান হিসেবে তোহফা এনেছেন আল কুরআন। যিনি ধরায় এসে ঘুচিয়ে দিয়েছেন ধনী গরিব উচুঁ নীচু সকল জাত বর্ণের বিভেদ, প্রতিষ্ঠা করেছে ন্যায়-সাম্য-সম্প্রীতিময় আদর্শ সমাজ।

মাহফিলে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আবুধাবি পুলিশের সিনিয়র অফিসার সালেম মাহমুদ মোবারক আল সেকলি ও জিসিসি জেনারেল ট্রান্সপোর্ট ডাইরেক্টর হামাদ সালেহ আবদুল্লাহ হামিস আল রামসী।

দুবাই কমিউনিটির জনপ্রিয় প্রবীণ ব্যক্তিত্ব আলহাজ্ব মুহাম্মদ হারুন এম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাহফিলে বক্তব্য রাখেন মাওলানা মাহবুবুল আলম বোগদাদী, মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম, আলহাজ্ব নুরুল আলমসহ অনেকে।

আমিরাতের বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ, প্রবাসী বাংলাদেশি, ভারত, পাকিস্তান, স্থানীয় আরবী এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের উপস্থিতিতে মাহফিল প্রাঙ্গণসহ আশপাশের এলাকাগুলো ছিলো কানায় কানায় পূর্ণ।

এছাড়াও মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমান এবং কাতারের বিভিন্ন শাখার তরিক্বতপন্থিরা এ মাহফিলে ভার্চুয়ালী যুক্ত ছিলেন।

মিলাদ কিয়াম শেষে প্রধান অতিথি বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি, অগ্রগতি ও উপস্থিত সকলের ইহকালীন কল্যাণ, পরকালীন মুক্তি এবং কাগতিয়ার গাউছুল আজম রাদ্বিয়াল্লাহু আনহুর ফুয়ুজাত কামনা করে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন।